আপনি কি ফ্ল্যাট কিনেছেন অথবা নতুন বাড়ি তৈরী করছেন । আপনি আপনার মনের মতো করে বাড়ি সাজাতে চান। আপনার আদিকালের পেটমোটা টিভিটি আর সেখানে রাখতে চান না? তাই অত্যাধুনিক, বড় এবং স্লিম টিভি তো কিনতেই হবে আপনাকে। আবার মনে করেন বন্ধু বান্ধবের বাড়িতে প্রায় সবার আধুনিক মানের টিভি রয়েছে। তাহলে আপনি কেন পুরনো টিভি বাড়িতে রেখে বৌয়ের কথা শুনবেন? এখন তো সবার চাহিদা এখন LED টিভি। এজন্য আজ Feeglee.com এর পাঠকদের জন্য নিয়ে এলাম স্মার্ট টিভি কেনার আগে যে বিষয়গুলি মাথায় রাখবেন।

টিভির দুরত্ব:
আপনাকে প্রথমে যেটি করতে হবে সেটি হলো টিভি কেনার আগে আপনার ঘরের মাপটা নিয়ে নিতে হবে। সেই মাপ অনুযায়ী আপনি টিভি কিনুন। ৩২ ইঞ্চি LED টিভি দেখতে অন্তত ৪ ফুট দূরত্ব লাগে এটা আপনাকে মনে রাখতে হবে। ৪০ থেকে ৪৮ ইঞ্চির এলইডি টিভি কিনলে ৭ ফুটের দূরত্ব বজায় রাখবেন। অথবা, আপনি যদি এর থেকে বড় সাইজের LED টিভি কিনতে চান, যেমন ধরুন ৫৫ থেকে ৬৫ ইঞ্চি, সেক্ষেত্রে টিভি দেখতে কম করেও ৯ ফিটের দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। মনে রাখবেন ৩২ ইঞ্চির নিচে কোনও LED টিভি কেনা উচিৎ না। এর কারন হলো বড় আকারের LED টিভি না কিনলে ডিজিটাল প্রযুক্তির মজাটাই পাবেন না আপনি।

পূর্ণাঙ্গ HD TV:

কেনার আগে দেখে নিন LED টিভিটি ফুল এইচডি কিনা। অনেকে না জানার কারনে “৭২০পি এইচডি রেডি টিভি” কিনেন। আপনাকে জানতে হবে এগুলি কখনই ফুল এইচডি LED টিভি না। আপনি যদি ফুল এইচডি LED টিভি চাইলে সবসময় “১০৮০পি টিভি” কিনবেন। আর যদি আপনাত ঘর ছোট হয় তবে “১০৮০পি টিভি” সবচেয়ে বেশি কার্যকরী।

টিভির স্মার্ট ফিচার:
অনেক সময় টিভি বিক্রেতা সংস্থাগুলি একই দামে বড় আকারের LED টিভি ও একটু ছোট আকারের LED টিভি বিক্রি করেন। অনেকে বলে ছোট্ট আকারের LED টিভি-র সঙ্গে স্মার্ট ফিচার থাকে। কিন্তু, এত কম দামে বিক্রিত টিভি-তে স্মার্ট ফিচারের সুবিধা নেই বলে জানানো হয়। আবার ধরেন LED প্রযুক্তির কথা মাথায় রাখলে সবসময় একজন ক্রেতার প্রথম পছন্দ হওয়া উচিত বড় LED টিভি।

টিভির প্রয়োজনীয়তা:
আপনার টিভি চ্যানেলের উৎসহ যদি সেট টপ বক্স হয়ে থকে তবে সবসময় বড় সাইজের টিভি কেনায় প্রাধান্য দিবেন। আর যদি টিভির সঙ্গে বেশিরভাগ সময় আপনি গেমস প্লেয়ার বা ডিভিডি অথবা ফ্ল্যাশ ড্রাইভস লাগিয়ে থাকেন তাহলে অত্যাধুনিক ফাইল ফর্মাট সাপোর্ট করতে পারে এমন LED টিভিই অবশ্যি কিনবেন।

অডিও সিস্টেম:
আপনি টিভি কিনতে গেলে দেখবেন টিভির অডিও সিস্টেম আপনার মনমত হবে না। যদিও ছবি দেখে আপনি খুশি হয়ে যাবেন তবে অডিও শুনলেই খুতখুত করবে আপনার মন। এজন্য আপনি ধরেই নিন LED টিভির স্পিকার কখনোই ভাল থাকে না। বরং, টিভির সঙ্গে ২.১ চ্যানেলের একটা ওফার বার কিনে নিতে ভুলবেন না। কেনার পর সেটা আপনার নতুন কেনা টিভির সঙ্গে জুড়ে দিন। দেখবেন আপনি ঘরে বসেই ডলবি ডিজিটালের এফেক্ট পেয়ে যাবেন।

কানেক্টিভিটি:
আপনি অবশ্যই টিভি কেনার সময় দেখে নিবেন তাতে সেটটপ বক্সের কানেকশন লাগানোর পোর্টের পাশাপাশি যেন এইচডিএমআই, ইউএসবি পোর্ট, ৩.৫ এমএম অডিও জ্যাক ও অন্যসব এভি পোর্টস, ব্লুটুথ যেন অবশ্যই থাকে। নতুবা আপনাকে বিপদে পরতে হবে টিভিটি নিয়ে।

স্মার্টের ফাঁদে পরবেন না:
এখনকার সময়ে নতুন আরও এক প্রযুক্তি বাজারে এসেছে যেটাকে “4k” বলা হচ্ছে। আর যাঁরা সেটটপ বক্সে টিভি দেখতে অভ্যস্ত তাঁদের কাছে “4k” প্রযুক্তির কোনও গুরুত্ব নেই। যদি সত্যি সত্যি আপনি “4k” প্রযুক্তির মজা নিতে চান তাহলে আপনার উচিত হবে দামি টিভি কেনা। এখন বাজারে এসেছে অ্যান্ড্রয়েড টিভি। অনেকেই কম দাম দিয়ে অ্যান্ড্রয়েড টিভি কিনছেন ইদানিং। যদি আপনার বাজেট কম হয় তাহলে কখনও প্রচুর পরিমাণ প্রযুক্তিগত সুবিধা খুঁজবেন না। এর কারণ হলো প্রচুর পরিমানে ফিচার সমেত কমদামে কোনও টিভি কিনলেন, দেখা যাবে তার ছবির মান আপনাকে খুশি করতে পারবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *